প্রিয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকগণ, উপজেলা / থানা সহকারী শিক্ষা অফিসার ATEO নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি সংক্রান্ত আলোচনায় আপনাকে স্বাগতম। ১৩তম গ্রেড থেকে একবারে থেকে ১০ম গ্রেডে উত্তীর্ণ হওয়ার জন্য উপজেলা / থানা সহকারী শিক্ষা অফিসার (ATEO) পদ টি প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকের জন্য একটি সুবর্ণ সুযোগ। এই যাত্রায় নিয়মিত চর্চা আর অধ্যবসায়ই আপনাকে পৌছে দিতে পারে আপনার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে। আপনারা নিশ্চই জেনে থাকবেন সদ্য ২৭ জুন ২০২৪ তারিখে ১৫৯ টি শূন্য পদে সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার (ATEO) সংশোধিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।

এই আর্টিক্যাল টি পড়ার পর সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO নিয়োগ প্রস্তুতি নিয়ে আপনার মনে আর কোন বিভ্রান্তি থাকবে না এবং সহজেই একটি গুছানো প্রস্তুতি শুরু করতে পারবেন এবং এখানে যে সাজেশনগুলো দেওয়া হবে সেগুলো ভালো ভাবে অনুসরণ করলে এই নিয়োগ পরীক্ষায় ভালো একটি ফলাফল অর্জন করতে পারবেন।

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO নিয়োগ পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতা:

২০২৩ সালে প্রকাশিত হওয়া সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার (ATEO) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বেশ কয়েকবার প্রার্থীর আবেদনের যোগ্যতা অংশে বেশকিছু সংশোধন করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। সংশোধিত সর্বশেষ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ATEO নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদনের যোগ্যতা নিম্নরূপ –

(ক) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যেকোন শিক্ষক বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। বর্ণিত পদের নিয়োগবিধি অনুযায়ী বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে ২ বছর পূর্ব অভিজ্ঞতার কোন বাধ্যবাধকতা নেই।

(খ) ৪ বছর মেয়াদী অনার্স ডিগ্রীধারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের যেকোন শিক্ষক স্নাতকোত্তর সমমান বিবেচনায় সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

(গ) জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের গত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখের আদেশ অনুযায়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঐসকল শিক্ষকগণ বিজ্ঞপ্তির শর্তানুযায়ী সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে নিয়োগ পরীক্ষা পদ্ধতি:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের নিয়োগ প্রক্রিয়াটি ৩ টি ধাপে হয়ে থাকে।

যথাঃ

১। প্রিলিমিনারি পরীক্ষা

২। লিখিত পরীক্ষা

৩। মৌখিক / ভাইভা পরীক্ষা

প্রথম ধাপে প্রার্থীদের ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়। পরবর্তীতে প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের ৫০ নম্বরের মৌখিক / ভাইভা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়।

উল্লেখ্য যে পূর্বে সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের নিয়োগ পরীক্ষাগুলো প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে হয়ে থাকলেও প্রথমবারের মতো ২০২৩ সাল ভিত্তিক এই নিয়োগ প্রক্রিয়াটি বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) এর অধীনে হবে। তাই এখন থেকে এই নিয়োগে পিএসসি নন-ক্যাডার ৯ম এবং ১০ম থেকে ১৩তম গ্রেড পদে নিয়োগ পরীক্ষা নিতিমালা ২০২৩ অনুসরণ করবে। এই নীতিমালা অনুযায়ী ৯ম গ্রেড এবং ১০ম থেকে ১৩তম গ্রেডের নন-টেকনিক্যাল পদের ক্ষেত্রে আবেদনকারী প্রার্থীর সংখ্যা ১০০০ জনের বেশি হলে লিখিত পরীক্ষার পূর্বে প্রথমে ১ ঘণ্টা ব্যাপী ১০০ নম্বরের MCQ ধরনের বাছাই পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে।

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে ১০০ নম্বরের এই MCQ পরীক্ষার জন্য সময় বরাদ্দ থাকে ১ ঘন্টা। প্রতিটি প্রশ্নের মান প্রশ্নের মান ১ নম্বর। এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.৫ মার্ক কর্তন করা হয় হয়।

বিষয় মানবন্টন
বাংলা (ব্যাকরণ + সাহিত্য) ২৫
ইংরেজি (Grammer + Literature) ২৫
গণিত (পাটিগণিত, বীজগণিত, জ্যামিতি) ২৫
সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক) ২৫
মোট নম্বর

১০০

ঘরে বসে ATEO নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে Live MCQ App টি ইন্সটল করুন

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতির জন্য বিষয়ভিত্তিক যে গুরুত্বপূর্ণ টপিকগুলোতে বিশেষভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হল –

বাংলা অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ

ATEO পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বাংলার বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য বাংলা ব্যাকরণ ও বাংলা সাহিত্য অংশের যে টপিক গুলো গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিয়ে আলোকপাত করা হল।

বাংলা ব্যাকরণ অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের বাংলা ব্যাকরণ অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আপনাকে যে টপিকগুলো অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে –

ব্যাকরণের আলোচ্য বিষয়, প্রমিত বাংলা বানানের নিয়ম, ধ্বনি ও ধ্বনির পরিবর্তন, বাংলা বর্ণমালা ও যুক্তবর্ণ, ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব বিধান, শব্দের উৎস ও পারিভাষিক শব্দ, শব্দ প্রকরণ, সন্ধি, কারক ও বিভক্তি, শব্দার্থ, সমার্থক শব্দ, উপসর্গ, বচন, লিঙ্গ, সংখ্যাবাচক শব্দ, সমাস, পদ প্রকরণ, বাগ্‌ধারা, বাক্য সঙ্কোচন ও এক কথায় প্রকাশ, প্রয়োগ-অপপ্রয়োগ, বাচ্য, বিপরীতার্থক শব্দ, যতিচিহ্ন, অনুবাদ।

বাংলা সাহিত্য অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের বাংলা সাহিত্য অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আপনাকে যে টপিকগুলোতে অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হল-

  • প্রাচীন যুগ:চর্যাপদ
  • মধ্যযুগ: মধ্যযুগের সাহিত্য ধারাসমূহ [পদাবলি, মঙ্গলকাব্য, অনুবাদ সাহিত্য ইত্যাদি।]
  • মধ্যযুগের গুরুত্বপূর্ণ লেখক, বাংলা সাহিত্যের যুগ বিভাগ, অন্ধকার যুগ, যুগ-সন্ধিক্ষণ,
  • লোক সাহিত্য – গীতিকা,
  • বাংলা গদ্য সাহিত্যের বিকাশ (ফোর্ট উইলিয়াম কলেজ ও অন্যান্যদের অবদান)।
  • বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ সংলাপ, উক্তি ও চরিত্র (সকল যুগ)।
  • বাংলা সাহিত্যে যা কিছু প্রথম।
  • আধুনিক যুগের কবি-সাহিত্যিকদের সাহিত্যকর্ম ও জীবনী

আধুনিক যুগের লেখকগণ:

  • মাইকেল মধুসূদন দত্ত,
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর,
  • কাজী নজরুল ইসলাম।
  • আহসান হাবীব,
  • ডি. এল. রায়,
  • মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।
  • তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
  • মীর মোশাররফ হোসেন,
  • ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাহিত্য।
  • ত্রিশের দশক ও বাংলা সাহিত্যের পঞ্চপাণ্ডব,
  • শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়,
  • প্রমথ চৌধুরী,
  • ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর,
  • জসীমউদ্দীন,
  • অন্নদাশঙ্কর রায়,
  • আখতারুজ্জামান ইলিয়াস,
  • শওকত আলী,
  • শওকত ওসমান,
  • শহীদুল্লাহ কায়সার,
  • শামসুর রাহমান,
  • সুকান্ত ভট্টাচার্য,
  • সৈয়দ শামসুল হক,
  • সৈয়দ মুজতবা আলী,
  • হাসান আজিজুল হক,
  • আধুনিক যুগের (সাম্প্রতিকসহ) অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ লেখক,
  • বাংলা সাহিত্যের গুরুত্বপূর্ণ নারী লেখক।
  • সাহিত্যিক ছদ্মনাম, উপাধি, সাহিত্য বিষয়ক পত্রিকা

ইংরেজি অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ 

ATEO পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ইংরেজি অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য ইংরেজি গ্রামার ও ইংরেজি সাহিত্য অংশের যে টপিক গুলো গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিয়ে আলোকপাত করা হল। 

ইংরেজি গ্রামার অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ 

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে ইংরেজি গ্রামার অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আপনাকে যে বিষয়গুলো অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হল –  

  • Parts of speech,
  • Appropriate Preposition, 
  • Linkers, 
  • Number, 
  • Gender.
  • Uses of Article, Degree, 
  • One Word Substitution, 
  • Translation (E2B & B2E), 
  • Tense, 
  • Sentence (Kinds of sentence), 
  • Tag question.
  • Voice, 
  • Narration, 
  • Proverbs, 
  • Completing Sentence with Appropriate Words, 
  • Terminology etc..
  • Words (Spelling, Meaning, Synonyms, Antonyms) and Idioms & Phrases
  • Transformation of sentences (Voice/ interchange of Assertive, Imperative, 
  • Interrogative, Exclamatory/ Affirmative – Negative, Simple, complex, compound & Degree)
  • Clause and Phrase (Identification and their types, Correction & Error Detection)

ইংরেজি সাহিত্য অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ 

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে ইংরেজি সাহিত্য অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য যে টপিকগুলো অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হল – 

  • Renaissance Period: William Shakespeare, Christopher Marlowe, Edmund Spenser, Francis Bacon, Ben Jonson, John Donne.
  • Neoclassical Period: John Milton, Alexander Pope, Jonathan Swift, Samuel Johnson, Thomas Gray.
  • Romantic Period: William Blake, William Wordsworth, S. T Coleridge, Lord Byron, John Keats, P. B Shelley, Jane Austen.
  • Victorian Period: Thomas Hardy, Charles Dickens, Alfred Tennyson, Emily Bronte.
  • Modern Period: G. B Shaw, Ernest Hemingway. T. S Eliot, W. B Yeats, O’ henry, William Somerset Maugham, D. H Lawrence, James Joyce, H. G Wells, Rudyard Kipling
  • Post Modern and Other countries: George Orwell, Arundhati Roy.

 

গণিত অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে গণিত অংশের (পাটিগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতি) অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য যে টপিকগুলো অধিক গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে তা নিম্নে আলোচনা করা হল।

পাটিগণিত –

  • বাস্তব সংখ্যা,
  • ল.সা.গু ও গ.সা.গু,
  • ঐকিক নিয়ম,
  • সরল ও যৌগিক মুনাফা
  • লাভ-ক্ষতি,
  • শতকরা
  • অনুপাত-সমানুপাত
  • ভগ্নাংশ

বীজগণিত –

  • বীজগাণিতিক সূত্রাবলী
  • উৎপাদকে বিশ্লেষণ।
  • অসমতা,
  • সূচক-লগারিদম
  • দ্বি-ঘাত ও সরল সহ-সমীকরণ,
  • সমান্তর ও গুণোত্তর ধারা
  • সেট ও ফাংশন,
  • সম্ভাব্যতা।

জ্যামিতি –

  • সরল রেখা, বৃত্ত ও বহুভুজ সংক্রান্ত সমাধান
  • ত্রিভুজ ও চতুর্ভুজ সংক্রান্ত সমস্যা সমাধান।
  • স্থানাঙ্ক জ্যামিতি,

সাধারন জ্ঞাণ অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতিঃ

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদের সাধারণ জ্ঞাণ অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতির জন্য বাংলাদেশ বিষয়াবলি, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি ও কম্পিউটার ও প্রযুক্তি অংশের যে বিষয়গুলো গুরুত্ব সহকারে পড়তে হবে –

বাংলাদেশ বিষয়াবলি অংশের প্রস্তুতি:

  • ভৌগোলিক অবস্থান ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলি [নদ-নদী, সাগর-মহাসাগর, পাহাড় ইত্যাদি]
  • বাংলাদেশ ও উপমহাদেশের ইতিহাস প্রাচীন জনপদ ও মধ্যযুগ,
  • বাংলাদেশের গুরত্বপূর্ণ স্থাপনা, ব্যক্তি।
  • বাংলাদেশ ও উপমহাদেশের ইতিহাস [ব্রিটিশ শাসন, পাকিস্তানি শাসন – ১৯৭০ এর নির্বাচন পর্যন্ত],
  • জাতীয় অর্জন।
  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খেলাধুলা
  • মুক্তিযুদ্ধ
  • সংবিধান
  • মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী ইতি
  • হাস,
  • বাংলাদেশের অর্থনীতি ও শিল্প-বাণিজ্য,
  • সরকার ও রাজনৈতিক ব্যবস্থা।
  • সুশাসন।

আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি অংশের প্রস্তুতি:

  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বনাঞ্চল (ম্যানগ্রোভ, রেইন, পাহাড়ি ইত্যাদি),
  • ভৌগোলিক উপনাম, প্রণালি,
  • দেশীয় ও বৈশ্বিক স্থান ও স্থাপনা (ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ),
  • দেশীয় ও বৈশ্বিক ভাষা, জনমিতিক বিষয় ইত্যাদি,
  • গুরুত্বপূর্ণ সূচক ও সমীক্ষা
  • বৈশ্বিক ইতিহাস, ভূ-রাজনীতি বিপ্লব ও সভ্যতা,
  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সীমারেখা ইত্যাদি।
  • বিখ্যাত ব্যক্তি (রাজনীতিবিদ, সমাজ সংস্কারক, বিপ্লবী),
  • গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের আবিষ্কারক।
  • আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক সংগঠন ইত্যাদি,
  • গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি, সনদ ও সম্মেলন,
  • মহাদেশ ও গুরুত্বপূর্ণ দেশের সাধারণ তথ্য (রাজধানী, মুদ্রা ইত্যাদি),
  • গুরুত্বপূর্ণ দেশ ও বাংলাদেশের সাথে সম্পর্ক,
  • জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সাম্প্রতিক বিষয়সমূহ।

বিজ্ঞান ও কম্পিউটার অংশের প্রস্তুতি:

  • ভৌত বিজ্ঞানের (পদার্থ ও রসায়ন) মৌলিক বিষয়সমূহ
  • জীব বিজ্ঞান (উদ্ভিদ ও প্রাণি) ও আধুনিক বিজ্ঞান বিষয়ক মৌলিক বিষয়াবলি।
  • কম্পিউটার ও ICT সম্পর্কিত মৌলিক বিষয়াবলি।

ATEO পদের বিগত সালের প্রশ্নপত্র এনালাইসি:

আপনারা নিশ্চই জেনে থাকবেন যে এর পূর্বে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অধীনে সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে ২০১০, ২০১২, ২০১৫ (দুই বার) ও ২০১৬ সালে সর্বমোট ৫ বার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিগত সালে অনুষ্ঠিত হওয়া সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার প্রশ্ন বিশ্লেষণ নিম্নে দেওয়া হল –

ঘরে বসে ATEO নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে Live MCQ App টি ইন্সটল করুন

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদে লিখিত পরীক্ষার মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের লিখিত লিখিত পরীক্ষার পূর্ণমান ২০০ নম্বর। বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) এর নন-ক্যাডার ৯ম এবং ১০ম থেকে ১৩তম গ্রেড পদে নিয়োগ পরীক্ষা নিতিমালা ২০২৩ অনুসারে ৯ম গ্রেড এবং ১০ম থেকে ১৩তম গ্রেডের নন-টেকনিক্যাল পদের ক্ষেত্রে শূন্য আবেদনকারী প্রার্থীর সংখ্যা ১০০০ বা তার কম হলে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের পর সরাসরি ৪ ঘণ্টা ব্যাপী ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। লিখিত পরীক্ষার বিষয় ও নম্বরবন্টন নিম্নরুপ:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের লিখিত পরীক্ষার মানবন্টন নিম্নরূপ –

বিষয় নম্বর
বাংলা ৫০
ইংরেজি ৫০
সাধারণ জ্ঞাণ ৪০
গণিত ও মানসিক দক্ষতা ৬০
সর্বমোট ২০০

উক্ত নীতিমালা অনুযায়ী সামগ্রিকভাবে পাশ নম্বর ৪৫% অর্থাৎ পাশ মার্ক ৯০। তবে প্রতিযোগিতামূলক এই পরীক্ষায় শুধু পাশমার্ক অর্জন করে কেও লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ নাও হতে পারেন যদি বাকী প্রতিযযোগীরা অনেক ভালো করে।

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের লিখিত পরীক্ষার বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন:

বাংলা লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের বাংলা লিখত অংশের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার আগে আপনাকে অবশ্যই বাংলা লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ও মানবন্টন সম্পর্কে জানতে হবে। বাংলা লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন নিম্নরূপ –

সিলেবাস মানবন্টন
রচনা ১৫
সারাংশ/সারমর্ম
পত্র লিখন ১০
বঙ্গানুবাদ
ব্যাকরণ ১৫
মোট ৫০

বাংলা লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতির গাইডলাইন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের বাংলা লিখিত অংশের প্রস্তুতি নিতে যেসব বিষয় পড়তে হবে তা নিম্নে দেওয়া হল –

  • রচনা:
  • সারাংশ/সারমর্ম:
  • পত্র লিখন: ( ব্যক্তিগত পত্র, আবেদনপত্র, পত্রিকায় প্রকাশনার্থে পত্র, ব্যবসা সংক্রান্ত পত্র, স্মারকলিপি।)
  • বঙ্গানুবাদ:
  • ব্যাকরণ: (ভাষার সংজ্ঞা, ভাষার রূপ, সাধুভাষা ও চলিত রীতির রূপান্তর, দেশি ও বিদেশি শব্দ, ণত্ব- বিধান ও ষত্ব-বিধানের সংজ্ঞা ও নিয়মাবলি, দ্বিরুক্ত শব্দ, পদ, ধাতু, উপসর্গ, অনুসর্গ, প্রকৃতি ও প্রত্যয়, যতি বা বিরাম চিহ্ন, শুদ্ধ ও অশুদ্ধ, বাগধারা, বাক্য সংকোচন, প্রতিশব্দ ও সমার্থক শব্দ, প্রায় সমোচ্চারিত শব্দ, একই শব্দের বিভিন্নার্থে প্রয়োগ।)

বাংলা লিখিত অংশের অধ্যয়নের উৎস:

  • ভাষা শিক্ষা, ড. হায়াৎ মামুদ।
  • প্রমিত বাংলা ব্যাকরণ ও নির্মিতি, ড. হায়াৎ মামুদ এবং ড. মোহাম্মদ আমীন।
  • বাংলা ভাষার ব্যাকরণ ও নির্মিতি, ৯ম-১০ম শ্রেণি।
  • সর্বশেষ সংস্করণের যেকোনো ভালোমানের গাইড বই ইত্যাদি।

ইংরেজি লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের ইংরেজি লিখত অংশের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার আগে আপনাকে অবশ্যই ইংরেজি লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ও মানবন্টন সম্পর্কে জানতে হবে। ইংরেজি লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন নিম্নরূপ – 

সিলেবাস মানবন্টন
Essay (with hints) ১৫
Comprehension ১০
Letter ১০
Grammar ১৫
মোট ৫০

ইংরেজি লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতির গাইডলাইন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের ইংরেজি লিখিত অংশের প্রস্তুতি নিতে যেসব বিষয় পড়তে হবে তা নিম্নে দেওয়া হল –

  • Essay
  • Comprehension
  • Letter: Official/ Demi-Official/ Memorandum/ Business Type.
  • Grammar: Use of verbs, prepositions, Voice, Narration, Correction of errors in composition, use of words having similar pronunciation but conveying different meanings, use of idioms and phrases.

ইংরেজি লিখিত অংশের অধ্যয়নের উৎস:

  • Live MCQTM Vocabulary Booster (520 High-Frequency Words) PDF, Live MCQTM Idioms PDF.
  • Applied English Grammar and Composition, P. C. Das.
  • A Passage to the English Language, S M Zakir Hossain.
  • Advanced Learner’s, HSC, Chowdhury & Hossain.
  • Oxford Dictionary, Cambridge Dictionary & Merriam-Webster Dictionary.
  • সর্বশেষ সংস্করণের যেকোনো ভালোমানের গাইড বই।

সাধারণ জ্ঞান লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের সাধারণ জ্ঞান লিখত অংশের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার আগে আপনাকে অবশ্যই সাধারণ জ্ঞাণ লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ও মানবন্টন সম্পর্কে জানতে হবে। সাধারণ জ্ঞাণ লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন নিম্নরূপ – 

সিলেবাস মানবন্টন
বাংলাদেশ বিষয়াবলি ১৫
আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি ১৫
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ১০
মোট ৪০

সাধারণ জ্ঞান লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতির গাইডলাইন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের সাধারণ জ্ঞান লিখত অংশের প্রস্তুতি নিতে যেসব বিষয় পড়তে হবে তা নিম্নে দেওয়া হল –

সাধারণ জ্ঞান বাংলাদেশ বিষয়াবলীর লিখিত অংশের প্রস্তুতির টপিক সমূহঃ

বাংলাদেশ বিষয়াবলি: বাংলাদেশের সংবিধান, বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থা, জনসংখ্যা, মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, শিল্প ও সাহিত্য, প্রাকৃতিক ও খনিজ সম্পদ, জলবায়ু, পরিবেশ, বাংলাদেশের উন্নয়নে কৃষি, শিল্প, বাণিজ্যের অবদান, উন্নয়ন পরিকল্পনা।

আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি: বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতি ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, জাতিসংঘ ও এর অঙ্গ সংগঠনসমূহ, আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ, গ্লোবালাইজেশন, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ, বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা স্থানসমূহ।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: দৈনন্দিন বিজ্ঞান, বায়ু, মাটি, তাপ, বিদ্যুৎ, আলো, চুম্বক, খাদ্যের উপাদান, জনস্বাস্থ্য, দূষণ, কম্পিউটার।

সাধারণ জ্ঞাণ বাংলাদেশ বিষয়াবলী লিখিত অংশের অধ্যয়নের উৎস:

  • ৭ম থেকে ৯ম শ্রেণির ‘বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়’ মূলবই।
  • ৯ম-১০ম শ্রেণির ‘বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা’ মূলবই।
  • গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সর্বশেষ সংশোধনী সম্বলিত মূল সংবিধান।
  • হাসান হাফিজুর রহমান সম্পাদিত ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ দলিলপত্র’।
  • মুনতাসির মামুনের লেখা ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস’।
  • সর্বশেষ প্রকাশিত অর্থনৈতিক সমীক্ষা।
  • প্রথিতযশা জাতীয় দৈনিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ ও সাম্প্রতিক কলামসমূহ।
  • সংশ্লিষ্ট বিষয়ের সরকারি ওয়েবসাইট।
  • বাংলাপিডিয়া ও যেকোনো নির্ভরযোগ্য তথ্যকোষ।
  • সর্বশেষ সংস্করণের কোনো নির্ভরযোগ্য গাইডবই।

সাধারণ জ্ঞান আন্তর্জাতিক বিষয়াবলির লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ টপিকসমূহ:

  • আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (সংজ্ঞা, প্রকৃতি, পরিধি, বিষয়বস্তু, গুরুত্ব); আন্তর্জাতিক রাজনীতি (পরিধি, বিষয়বস্তু, পাঠের প্রয়োজনীয়তা, নিয়ন্ত্রক উপাদানসমূহ); আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও আন্তর্জাতিক রাজনীতির মধ্যে পার্থক্য; আন্তর্জাতিক সম্পর্ক তত্ত্ব; আন্তর্জাতিক সম্পর্কে বাস্তববাদ, আচরণবাদ, বহুত্ববাদ ও উদারনীতিবাদ; স্নায়ুযুদ্ধ (পরিচিতি, উৎপত্তির স্বরূপ, কারণসমূহ ও পরবর্তী বিশ্ব পরিস্থিতি); Clash of Civilization, UDHR, CEDAW, Shadow Pandemic, ম্যাগনা কার্টা, ক্যাম্প ডেভিড চুক্তি প্রভৃতি।
  • বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির মূল বৈশিষ্ট্যসমূহ; ভূ-রাজনীতির প্রেক্ষাপটে বঙ্গোপসাগরের গুরুত্ব; বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থানের সমস্যা ও সম্ভাবনা; বিদেশের বাজারে দক্ষ জনশক্তি প্রেরণ (প্রয়োজনীয়তা, ভূমিকা ও কৌশল); আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জ, অর্জন ও সম্ভাবনা; বাংলাদেশ-চীন, বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক; স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে প্রবেশ; বর্তমান অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ প্রভৃতি।
  • জাতিসংঘ (গঠনের পটভূমি, কার্যাবলি, সাফল্য ও ব্যর্থতা, মহাসচিবের ক্ষমতা ও কার্যাবলি); জাতিসংঘের সনদ অনুসারে নিরাপত্তা পরিষদের গঠন ও মূল দায়িত্ব; জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনের সাফল্য ও বাংলাদেশের অংশগ্রহণ; আন্তর্জাতিক আদালত (গঠন, ক্ষমতা ও কার্যাবলি); পরিবেশগত এজেন্ডা, মানবাধিকার এজেন্ডা; শরণার্থী সংকট মোকাবেলায়, নারীর ক্ষমতায়নে ও আন্তর্জাতিক বিরোধ মীমাংসায় জাতিসংঘের ভূমিকা।
  • বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা, বিশ্বব্যাংক, আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (উৎপত্তি, বিকাশ, কার্যক্রম, নীতিমালা ও ভূমিকা); ব্রিকস, আইডিবি, AIIB, NDB; জি-৭, জি-২০, জি-৭৭ (উৎপত্তি, বিকাশ, কার্যক্রম); কিয়োটা প্রটোকল চুক্তি, জলবায়ু পরিবর্তনে কপ (COP) এর পদক্ষেপ প্রভৃতি।
  • সার্ক (অবদান, সাফল্য-ব্যর্থতা, সনদ পরিবর্তনে পরামর্শ ও বর্তমান অবস্থা); ন্যাম (গঠন, কার্যক্রম, অবদান ও কার্যকর করার জন্য পরামর্শ); ইউরোপীয় ইউনিয়ন (বিকাশ ও সম্প্রসারণ); ও.আই.সি (গঠন, কার্যাবলি, মুসলমানদের স্বার্থরক্ষা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা); ওপেক (গঠন, পটভূমি, উদ্দেশ্য, অবদান ও সম্ভাবনা); ASEAN, BIMSTEC, EU, ASEAN, APEC, AU, GCC, Common Wealth, RCEP (গঠন, উদ্দেশ্য, কার্যক্রম, সাফল্য-ব্যর্থতা); NATO (উদ্দেশ্য ও কার্যপ্রণালি); দক্ষিণ এশীয় বাণিজ্য চুক্তি: SAPTA, SAFTA; AFTA ও অন্যান্য আঞ্চলিক অর্থনৈতিক ও সহযোগীতা চুক্তি প্রভৃতি।
  • বিশ্বায়ন, বিশ্বের প্রধান ইস্যু ও দ্বন্দ্বসমূহ; বিশ্বের বিখ্যাত ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা স্থানসমূহ প্রভৃতি।

সাধারণ জ্ঞান আন্তর্জাতিক বিষয়াবলির অধ্যয়নের উৎস:

  • জাতীয় দৈনিক পত্রিকার আন্তর্জাতিক সংবাদ, প্রাসঙ্গিক কলাম ও সম্পাদকীয়।
  • নয়া বিশ্বব্যবস্থা ও সমকালীন আন্তর্জাতিক রাজনীতি- তারেক শামসুর রেহমান।
  • বিশ্ব রাজনীতির ১০০ বছর- তারেক শামসুর রেহমান।
  • আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, সংগঠন ও পররাষ্ট্রনীতি- শাহ মুহাম্মদ আব্দুল হাই।
  • আন্তর্জাতিক সম্পর্কের মূলনীতি- মোঃ আবদুল হালিম।
  • আন্তর্জাতিক সম্পর্কের উপর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স পর্যায়ের পাঠ্য।
  • বেবি মওদুদের রচনায় ‘আন্তর্জাতিক সম্পর্ক উন্নয়নে শেখ হাসিনা’ গ্রন্থ।
  • অধ্যাপক মুহাম্মাদ নূরুল ইসলামের ‘বাংলাদেশের বৈদেশিক সম্পর্ক’ বই।
  • মোস্তফা কামালের লেখা ‘আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ও বাংলাদেশ’।
  • সর্বশেষ সংস্করণের কোনো নির্ভরযোগ্য গাইডবই।
  • ব্রিটানিকা, ওয়ার্ল্ড এটলাস, বাংলাপিডিয়া – ইত্যাদি থেকে টপিক সার্চ করে বিস্তারিত পড়ে নিবেন।
  • সংশ্লিষ্ট সংস্থার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট।

সাধারণ জ্ঞাণ বিজ্ঞান অংশের গুরত্বপূর্ণ টপিকসমূহ:

  • আলোর প্রকৃতি, বর্ণালি; বিভিন্ন রং ও তরঙ্গ দৈর্ঘ্য; অতিবেগুনি রশ্মি, অবলোহিত রশ্মি ও লেজার; আলোর প্রতিফলন, আলোর প্রতিসরণ, আলোর বিচ্চুরণ; লেন্স, আলোর পূর্ণ অভ্যন্তরীণ প্রতিফলন; আলোর কণাতত্ত্ব, আইনস্টাইনের ফটোতড়িৎ সমীকরণ, আলোক কোষ প্রভৃতি।
  • চুম্বক ও চুম্বকত্ব; চৌম্বক ও অচৌম্বক পদার্থ; চৌম্বকের পোলারিটি এবং বিদ্যুতের সাথে সম্পর্ক; চৌম্বক বলরেখা; দন্ড চুম্বক হিসেবে পৃথিবীর চুম্বকক্ষেত্র; তড়িৎ চুম্বক; ট্যানজেন্ট গ্যালভানোমিটার; কম্পন ম্যাগনেটোমিটার; ডায়া, প্যারা, ফেরোম্যাগনেটিক পদার্থ; তড়িৎ চুম্বক ও স্থায়ী চুম্বক প্রভৃতি।
  • মাটি, মাটির প্রকারভেদ, মাটির গঠন, মাটির বৈশিষ্ট্য, মাটির pH; মাটি ক্ষার ও অম্ল হওয়ার কারন, বাফারিং; মাটি দূষণের কারণ, প্রভাব, প্রতিরোধ; প্রাকৃতিক গ্যাস ও এর প্রধান উপাদান; প্রাকৃতিক গ্যাস, পেট্রোলিয়াম ও কয়লার উৎস, প্রক্রিয়াকরণ ও ব্যবহার; বনপালনবিদ্যা, আমাদের সম্পদের সীমাবদ্ধতা ও সংরক্ষণ; দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান, বিভিন্ন ধরনের দূষণ প্রভৃতি।
  • খাদ্যের বিভিন্ন উপাদান; প্রোটিন; স্নেহ ও লিপিড; শর্করা; ভিটামিন; শর্করা ও প্রোটিনের প্রকারভেদ ও উৎস; রাফেজ; পুষ্টি মান; সুষম খাদ্য উপাদান তালিকা; সুষম খাদ্যের পিরামিড; বডি মাস ইনডেক্স (BMI), জাঙ্ক ফুড; খাদ্য সংরক্ষণ, খাদ্য সংরক্ষণের বিভিন্ন পদ্ধতি; খাদ্য সংরক্ষণে ব্যবহৃত রাসায়নিক উপাদানের ব্যবহার ও এর শারীরিক প্রতিক্রিয়া প্রভৃতি।
  • রোগ সংক্রমণ, কারণ ও প্রতিকার; এন্টিবায়োটিক; স্ট্রোক; হৃদরোগ; উচ্চ রক্তচাপ; ডায়াবেটিস; ডেঙ্গু; কোভিড-১৯; এইডস; ক্যান্সার; ডায়রিয়া; মাদকাসক্তি; ভ্যাকসিনেশন; ফুড পয়েজনিং; কেমোথেরাপি; রেডিওথেরাপি; সিটিস্ক্যান; এম.আর.আই প্রভৃতি।

সাধারণ জ্ঞাণ কম্পিউটার ও প্রযুক্তির গুরুত্বপূর্ণ টপিকসমূহ:

  • কম্পিউটার সংগঠন ও কার্যাবলি, কম্পিউটারের ইতিহাস, কম্পিউটারের প্রজন্ম; সিপিইউ ও তার অংশ, মাইক্রোপ্রসেসর, মাদারবোর্ড; কম্পিউটার মেমরি, ইনপুট ও আউটপুট ডিভাইস, বায়োস, বাস আর্কিটেকচার; অনুবাদক প্রোগ্রাম; প্রোগ্রামিং ভাষা; সফটওয়্যার, অপারেটিং সিস্টেম, অফিস অটোমেশন; কম্পিউটার ভাইরাস, দৈনন্দিন জীবনে কম্পিউটারের প্রভাব প্রভৃতি।
  • ডাটা ও ডাটা কমিউনিকেশন, তথ্য সংগ্রহ, প্রক্রিয়াকরণ ও বন্টন; ডাটাবেজ সফটওয়্যার ও কাঠামো, ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম; মাল্টিমিডিয়া সিস্টেম, হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার; LAN, MAN, WAN, GPS, টপোলজি, নেটওয়ার্কিং ডিভাইস (রাউটার, সুইচ, হাব প্রভৃতি); প্রোটোকল, ইন্ট্রানেট, এক্সট্রানেট, ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার; WWW, ওয়েব প্রযুক্তি, জনপ্রিয় ওয়েবসাইটসমূহ; ক্লাউড কম্পিউটিং, ইমেইল, ডাটাবেজ, সাইবার নিরাপত্তা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম; ট্রান্সমিশন মিডিয়া, ব্যান্ডউইথ, অপটিক্যাল ফাইবার, ওয়াইফাই; টেলিকমিউনিকেশন এবং স্যাটেলাইট যোগাযোগ, ভিস্যাট; ই-কমার্স; সাম্প্রতিক আলোচিত তথ্য প্রযুক্তির গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহ প্রভৃতি।

সাধারণ জ্ঞাণ বিজ্ঞান, কম্পিউটার প্রযুক্তির অধ্যয়নের উৎস:

  • ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণির সাধারণ বিজ্ঞান বই। 
  • ২০১৯ সংস্করণের ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ বিজ্ঞান বই (অবশ্যই পড়তে হবে)।
  • ৯ম-১০ম শ্রেণির পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন বিজ্ঞান ও জীববিজ্ঞান বই।
  • ৮ম, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি বই।
  • কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি, একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণি, প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান।
  • সর্বশেষ সংস্করণের ভালোমানের নির্ভরযোগ্য যেকোনো গাইডবই।

গণিত লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের গণিত লিখত অংশের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার আগে আপনাকে অবশ্যই গণিত লিখিত পরীক্ষার সিলেবাস ও মানবন্টন সম্পর্কে জানতে হবে। গণিত লিখিত অংশের বিষয়ভিত্তিক মানবন্টন নিম্নরূপ – 

সিলেবাস মানবন্টন
পাটিগণিত ১৫
বীজগণিত ১৫
জ্যামিতি ১০
মানসিক দক্ষতা ২০
মোট ৬০

গণিত লিখিত অংশের গুরুত্বপূর্ণ টপিকসমূহঃ

পাটিগণিত: সেট ও সংখ্যা, সরল, গড়, লাভ-ক্ষতি, শতকরা, সুদকষা, ক্ষেত্রফল, অনুপাত, সমানুপাত।

বীজগণিত: বর্গ ও ঘন এর সূত্র এবং এর ব্যবহার, ল.সা.গু, গ. সা. গু, উৎপাদকে বিশ্লেষণ, সমাধান, মান নির্ণয় ইত্যাদি।

জ্যামিতি: প্রাথমিক ধারণা ও সংজ্ঞা, রেখা, বিন্দু, কোণ, ত্রিভুজ, চতুর্ভুজ সম্পৰ্কীয়, বিষয়াদি; ক্ষেত্রফল ও বৃত্ত সম্পৰ্কীয় বিষয়াদি, ত্রিকোণমিতি ইত্যাদি।

মানসিক দক্ষতা: Ability to understand language, decision making ability, ability to measure spatial relationship and direction, problem solving ability, perceptual ability etc.

গণিত লিখিত অংশের অধ্যয়নের উৎস

  • সরল ও যৌগিক মুনাফা ৮ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.১ এবং ২.২, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩.৫, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪.৩ থেকে পড়বেন।
  • শতকরা ৬ষ্ঠ শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.২, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪ থেকে পড়বেন।
  • লাভ-ক্ষতি ৭ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.২, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩.৫, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪.২ থেকে পড়বেন।
  • অনুপাত-সমানুপাত ৬ষ্ঠ শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.১, ৭ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.১, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩ থেকে পড়বেন।
  • ঐকিক নিয়ম ৬ষ্ঠ শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.৩, ৭ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২.৩, ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ২ থেকে পড়বেন।
  • সেট ৮ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৭; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ১ থেকে পড়বেন।
  • সমান্তর ও গুণোত্তর ধারা ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ১৩; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৭ থেকে পড়বেন।
  • বীজগাণিতিক সূত্রাবলি এবং বহুপদী উৎপাদকে বিশ্লেষণ ৬ষ্ঠ শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩; ৭ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪, ৫ এবং ৬; ৮ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪ এবং ৫; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ২; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০০২ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় ২, ৩ এবং ৪ থেকে পড়বেন।
  • সূচক এবং লগারিদম ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৪; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৯; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (১৯৮৩ সংস্করণ) অধ্যায় – ৬ থেকে পড়বেন।
  • জ্যামিতি ৮ম শ্রেণির গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৬, ৮, ৯ এবং ১০; ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৬, ১৪ এবং ১৫; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৩ থেকে পড়বেন।
  • পরিমিতি ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ১৫ এবং ১৬; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ১৩ থেকে পড়বেন।
  • ত্রিকোণমিতি ৯ম-১০ম শ্রেণির সাধারণ গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৯ এবং ১০; ৯ম-১০ম শ্রেণির উচ্চতর গণিত বইয়ের (২০১৯ সংস্করণ) অধ্যায় – ৮ থেকে পড়বেন।
  • সর্বশেষ সংস্করণের নির্ভরযোগ্য যেকোনো গাইডবই।

মানসিক দক্ষতা লিখিত অংশের গুরুত্বপুর্ন টপিকসমূহ

  • বানান ও ভাষা
  • সমস্যা সমাধান
  • সংখ্যাগত দক্ষতা
  • স্থানাঙ্ক সম্পর্ক
  • বিমূর্ত যুক্তি
  • যান্ত্রিক দক্ষতা

মানসিক দক্ষতা লিখিত অংশের অধ্যয়নের উৎস

  • বিগত বিসিএস লিখিত ও প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আসা মানসিক দক্ষতার সব প্রশ্ন একসাথে সংগ্রহ করে সমাধান করে ফেলতে হবে। একই টপিকের অন্যান্য প্রশ্নগুলোর উপরও গুরুত্ব দিয়ে পড়তে হবে।
  • মানসিক দক্ষতার জন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট যেমন – Examveda, Indiabix ইত্যাদি থেকে বিসিএস সিলেবাসের টপিকগুলোর উপর প্রস্তুতি নিন।
  • The Aptitude Test Workbook by Jim Barrett বইটি থেকে সিলেবাস মিলিয়ে পড়তে পারেন।
  • Mechanical Aptitude Test by Paul Newton বইটি থেকে সিলেবাস মিলিয়ে পড়তে পারেন।
  • সর্বশেষ সংস্করণের যেকোনো ভালোমানের গাইডবই।

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার ATEO পদের মৌখিক পরীক্ষার প্রস্তুতি:

যেকোনো চাকরির পরীক্ষায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো মৌখিক পরীক্ষা। সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদের মৌখিক পরীক্ষায় ধাপটি আরো বেশি গুরুত্বপূর্ণ; কেননা এই পদের মৌখিক পরীক্ষায় ৫০ নম্বর বরাদ্দ থাকে। পাস করার জন্য ন্যূনতম ৫০% নম্বর অর্থাৎ ২৫ নম্বর পেতে হয়। তাই সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদের ভাইভার জন্য যথাযথ ও ভালো প্রস্তুতি নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আশা করি, Live MCQ ও Live Written টিম প্রণীত বিসিএসের ভাইভা পরীক্ষার বিস্তারিত ও প্রস্তুতির জন্য করণীয় সম্পর্কে সাজেশনটি আপনাদের কাজে লাগবে।

  • ভাইভাতে বাংলা বা ইংরেজি – দুইটির যেকোনো ভাষাতেই প্রশ্ন করতে পারে। তাই প্রস্তুতি নেওয়ার সময় মূল বিষয়গুলো দুই ভাষাতেই নোট ও অনুশীলন করুন।
  • কেবল সংখ্যা বা তথ্য জানার জন্য প্রশ্ন বাদ দিয়ে এমন প্রশ্ন করা শুরু হয়েছে যাতে শুধু মুখস্থবিদ্যা নয়, একই সঙ্গে প্রার্থীর সার্বিক বিশ্লেষণ ক্ষমতা, উপস্থিত বুদ্ধি এবং অন্তর্নিহিত প্রজ্ঞার পরিচয় পাওয়া যায়।
  • ভাইভাতে প্রার্থীর বাচনভঙ্গির পাশাপাশি দেশপ্রেম, মূল্যবোধ, ব্যক্তিত্ব, স্বকীয়তা প্রভৃতি লক্ষ্য করা হয়।
  • সুতরাং, ভাইভার প্রস্তুতির ক্ষেত্রে উপর্যুক্ত বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে। কিছু মৌলিক বিষয় অবশ্যই জেনে রাখতে হবে।
  • ভাইভার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সঙ্গে নিন। এই বিষয়ে পিএসসির নির্দেশনা মেনে চলুন।
  • ভাইভার দিনের নিউজ পেপার দেখে নিন। তাছাড়া অন্তত ১ সপ্তাহের সকল ব্রেকিং নিউজ পড়ে রাখতে হবে।

পিএসসি ভাইভা প্রস্তুতিকে কয়েকটি ধাপে ভাগ করা যায়। ধাপগুলো বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো:

ব্যক্তিগত বিষয় সম্পর্কিত:

  • ভাইভার শুরুতেই প্রার্থীর নিজের ব্যক্তিগত পরিচয়, পরিবার, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, Strength-Weakness, পছন্দ-অপছন্দ এবং বিসিএস কেন দিচ্ছেন তার সম্পর্কে জানতে চাইতে পারে।
  • তাছাড়া এই ধরনের ভাইভায় আরো কিছু কমন প্রশ্ন করা হয়। যেমন নিজের নামের অর্থ, আপনার নামের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিখ্যাত ব্যক্তি, ভাইভা অনুষ্ঠিত হওয়ার দিনের তারিখের তাৎপর্য প্রভৃতি।
  • এছাড়া আপনার বিশেষ কোন গুণ (গান করা/ কবিতা আবৃত্তি/বিতর্ক) সম্পর্কে জিজ্ঞেস করতে পারে।
  • নিজের পড়া সর্বশেষ বই বা পছন্দের বই সম্পর্কেও প্রশ্ন করতে পারে। অনেক সময় সর্বশেষ দেখা সিনেমা নিয়েও প্রশ্ন করার রেকর্ড রয়েছে।
  • এই বিষয়গুলো আগে থেকে গোছানো থাকলে প্রশ্ন করা হলে খুব সহজে উত্তর করা যাবে।

জেলা ও উপজেলা সম্পর্কিত:

পিএসসি এর এই ধরনের ভাইভাতে প্রার্থীর নিজ জেলা / উপজেলা সম্পর্কে প্রশ্ন করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তারপরেও এই ধরনের ভাইভাতে প্রার্থীর নিজ জেলা / উপজেলা সম্পর্কৃত প্রশ্ন করতে পারে। তাই নিজ জেলা ও উপজেলার প্রতিষ্ঠা, নামকরণ, বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব এবং মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত স্থান, বিখ্যাত নদ বা নদী, বিখ্যাত পণ্য, অখ্যাত স্থান বা কুখ্যাত ব্যক্তি, মুক্তিযুদ্ধের সময় সেক্টর নম্বর এবং সেক্টর কমান্ডার প্রভৃতি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বিস্তারিত জেনে যাবেন। এই সকল তথ্য জেলা তথ্য বাতায়ন ও বিভিন্ন পত্রিকা থেকে খুঁজে বের নোট করে নিবেন। বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত প্রতিটি জেলা সম্পর্কিত বই থেকেও তথ্য নিতে পারেন।

বর্তমান পেশা সম্পর্কৃত:

সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার পদে আবেদনকারী সবাই যেহেতু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন তাই নিজ কর্মস্থল, কার্যপরিচালনা পদ্ধতি, কাজের পরিবেশ, বিভিন্ন সমস্যা ও সমাধানের উপায় এসকল বিষয়ে প্রশ্ন হতে পারে। তাই প্রার্থীদের এই বিষিয়গুলোতে গঠনমূলক উত্তর দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

নিজের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত:

পিএসসি এর এই ধরনের ভাইভাতে প্রার্থীর নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কেও প্রশ্ন করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তবে এই সম্পর্কে প্রশ্ন করা হতে পারে; নিজের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে খুঁটিনাটি জানা থাকা উচিত। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব ও স্থান প্রভৃতি জেনে যাবেন। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে যে হলে থেকেছেন সে হল সম্পর্কিত বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব এবং আপনার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত থাকলে তাও জানতে হবে।

নিজের গ্রাজুয়েশন সাবজেক্ট সম্পর্কিত:

এই ধরনের ভাইভায় আপনার স্নাতক-স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পঠিত বিষয় থেকে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। তাই আপনার পঠিত বিষয়ের মৌলিক বিষয়াবলি, জনপ্রিয় Theory, মাঠ কর্ম, গবেষণাপত্র এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক বিষয়াবলি সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখতে হবে।

  • তাছাড়া আপনার পঠিত বিষয় কীভাবে আপনার বিসিএস চয়েজ লিস্টের প্রথম দিকের ক্যাডার (যেমন- পররাষ্ট্র, প্রশাসন, পুলিশ প্রভৃতি) এর সাথে সম্পর্কযুক্ত তা জেনে নিতে হবে।
  • যাদের বোথ ক্যাডার চয়েজ তাদের অবশ্যই নিজের বিষয় থেকে প্রশ্ন করবে। সুতরাং, তাদের আরো বেশি ভালোভাবে প্রস্তুতি থাকতে হবে।

এতে ভাইভা পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ টপিকসমূহ ও সাজেশন:

  • বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সংঘটিত বিভিন্ন ঘটনাবলি, ভাষা আন্দোলন, যুক্তফ্রন্ট, ছয় দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা, উনসত্তরের গণঅভ্যুথান, সত্তরের নির্বাচন, অপারেশন সার্চলাইট, স্বাধীনতার ঘোষণা, মুজিবনগর সরকার, অপারেশন জ্যাকপট, বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড, আত্মসমর্পণ চুক্তি ইত্যাদি সম্পর্কে জেনে যাবেন।
  • জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কিত সব পড়তে হবে। বঙ্গবন্ধু ভাষণ, বই, বঙ্গবন্ধকে নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র প্রভৃতির গুরত্বপূর্ণ তথ্য নোট করে নিবেন।
  • বঙ্গবন্ধুর পরবর্তী শাসনামল, জাতীয় চার নেতা, জেল হত্যা প্রভৃতিও জেনে নিবেন।
  • মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র নীতি, বর্তমান সরকারের সাফল্য ও উন্নয়ন কর্মকান্ড নিয়ে বিস্তর ধারণা রাখতে হবে।
  • সংবিধান, সাংবিধানিক আইন ও রাজনীতি, বিপিএসসির ইতিহাস, ওয়ারেন্ট অব প্রিসিডেন্স সম্পর্কে জানতে হবে।
  • বাজেট, অর্থনৈতিক সমীক্ষা, সংসদ নির্বাচন, মন্ত্রীবৃন্দ, সরকার, প্রশাসন ও রাজনীতি সম্পর্কে পড়ে যাবেন।
  • দেশের জিডিপি, জাতীয় আয়, মাথাপিছু জাতীয় আয়, বাজেট সম্পর্কে পড়তে হবে।
  • বিশ্ব ও বাংলাদেশ মানচিত্র ও ভৌগোলিক অবস্থা সম্পর্কে গভীর ধারণা রাখতে হবে।
  • সমসায়য়িক গুরত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি, রাশিয়া-ইউক্রেন, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন, মধ্যপ্রাচ্য সংকট সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে যাবেন।
  • ভাইভার দিন সকালে ঐ দিনের খবরের কাগজ দেখবেন এবং বাংলা তারিখ জেনে নিবেন।
  • ভাইভার সময় কোন বিখ্যাত ব্যক্তি বাংলাদেশে ভ্রমণ করলে বা বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি বা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কোথাও সফরে গেলে সেটি সম্পর্কে জেনে নিবেন।
  • নিয়মিত পত্রিকা পড়তে হবে, জাতীয় পত্রিকার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক পত্রিকাও পড়তে পারেন।
  • বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক সাম্প্রতিক ঘটনাবলির জন্য Live MCQ ডাইনামিক প্যানেল দেখবেন।

ভাইভায় উত্তর প্রদানের ভাষা:

  • বিসিএস ভাইভায় বাংলা বা ইংরেজি যেকোনো ভাষায় প্রশ্ন করতে পারে। তাই সকল প্রশ্নের উত্তর দুই ভাষায় অনুশীলন করে যাবেন। প্রশ্ন যে ভাষায় করবে, উত্তরও সেই ভাষায় দিবেন। বাংলায় প্রশ্ন করলে ইংরেজি অথবা ইংরেজিতে প্রশ্ন করলে বাংলায় উত্তর দেওয়া যাবে না।
  • ভাইভার জন্য ইংরেজি স্পিকিং অনুশীলন করে যাবেন। কারণ ন্যূনতম কয়েকটা প্রশ্ন ইংরেজিতে করা হতে পারে। যেহেতু আপনি দেশের সর্বোচ্চ মর্যাদার চাকরিতে যোগ দিতে যাচ্ছেন, তাই ইংরেজি জানা থাকা উচিত। তবে ইংরেজিতে প্রশ্ন করলে একান্তই উত্তর দিতে না পারলে, বিনয়ের সাথে স্যার থেকে অনুমতি নিয়ে বাংলায় বলবেন।

ভাইভা বোর্ডে নিজেকে উপস্থাপন:

  • ভাইভা বোর্ডে সবসময় প্রমিত ও মার্জিত ভাষায় কথা বলার চেষ্টা করবেন। আপনার কথায় আঞ্চলিকতার টান থাকলে বাসায় বেশি বেশি অনুশীলন করুন। ভাইভা বোর্ডে আঞ্চলিকতা পরিহার করার চেষ্টা করবেন।
  • ভাইভা বোর্ডকে জয় করতে হলে বোর্ড সদস্যদের মনস্তত্ত্ব বোঝা এবং সকল প্রশ্নের উত্তর হাসিমুখে দেওয়া চেষ্টা করতে হবে। বোর্ডে সবসময় ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি এবং আত্মবিশ্বাস ধরে রাখতে হবে।
  • বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে আপনার যথাযথ আই কন্টাক্ট রাখতে হবে। বোর্ডের যে সদস্য প্রশ্ন করবে তাঁর দিকে তাকিয়ে/ফোকাস করে উত্তর দিবেন। উত্তর দিতে হবে টু-দ্যা-পয়েন্টে। কারণ মূল থিমের বাহিরে গিয়ে অতিরিক্ত কথা বলা অনেক বোর্ড সদস্য পছন্দ করে না।

ভাইভায় যা করা যাবে না:

  • অনুমতি না নিয়ে প্রবেশ করবেন না, অনুমতি নিয়ে চেয়ারে বসবেন এবং বোর্ডের কাছাকাছি দূরত্বে গিয়ে সালাম দিবেন দূর থেকে বা উচ্চস্বরে সালাম দিবেন না।
  • দরজা খোলা বা বন্ধ করার সময় শব্দ যেন না হয়। কোনো কারণে প্রবেশের সময় শব্দ হয়ে গেলে সাথে সাথে দুঃখ প্রকাশ করে নিবেন।
  • কুঁজো হয়ে কথা বলবেন না। সোজা এবং ভদ্রোচিতভাবে চেয়ারে বসবেন। তাড়াহুড়ো করে উত্তর দেওয়া থেকে বিরত থাকবেন।
  • কোনভাবেই ভাইভা বোর্ডের সদস্যদের সাথে তর্ক করা যাবে না। যদি ভুলও বলে, তবে ভুলটা মেনে নিবেন বিনয়ের সাথে। অসৌজন্যমূলক বা বেয়াদবি প্রকাশ পায়, এমন কোনো আচরণ করবেন না।
  • কোন বিতর্কিত বিষয়ে আপনার মতামত জানতে চাওয়া হলে সরকারের বিপক্ষে মত না দিয়ে কৌশলের সাথে উত্তর করুন।
  • যে প্রশ্নের উত্তর পারে না সেটা আন্দাজের উপর উত্তর দিবে না। প্রয়োজনে বিনয়ের সাথে সরি/দুঃখিত বলবেন।
  • মুখের জড়তা/তোতলামি থাকলে আগে থেকেই ব্যবস্থা নিবেন, তোতলামি পরিহার করবেন। প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট হলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার থেকে পরামর্শ নিতে পারেন। তাছাড়া বাসায় নিয়মিত শান্ত, ধীরে-সুস্থে এবং সাবধানে কথা বলার চর্চা করতে পারেন।
  • ওয়েটিং রুমে উচ্চস্বরে কথা বলবেন না।

ধৈর্য্য সহকারে সম্পূর্ণ আর্টিক্যাল টি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আশাকরি আর্টিক্যালে উল্লেখিত বিষয়গুলো আপনার সহকারী উপজেলা / থানা শিক্ষা অফিসার নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতিকে আরও সহজ করে তুলবে। এ সংক্রান্ত যেকোন প্রয়োজনে কমেন্ট করুন অথবা আমাদের ফেসবুক পেইজে ম্যাসেজ করুন। ধন্যবাদ।

ঘরে বসে ATEO নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে Live MCQ App টি ইন্সটল করুন